সকাল ৯:১০ । ২২শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ । ৭ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ । ২৩শে রজব, ১৪৪২ হিজরি


জরুরী নোটিশ/বিজ্ঞপ্তিঃ
* সর্বশেষ খবর সবার আগে পেতে ভিজিট করুন নীলাকাশ বার্তা ডট কম। ধন্যবাদ। জরুরী ভিত্তিতে বাংলাদেশের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোটাল নীলাকাশ বার্তা ডট কম পত্রিকায় জেলা/উপজেলা ভিত্তিক প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন। অফিস : সুন্দরবন টাওয়ার (২য় তলা), নূরনগর বাজার, নূরনগর-৯৪৫১, শ্যামনগর, সাতক্ষীরা, ঢাকা, বাংলাদেশ। মোবাঃ +৮৮০১৮৮৫-১৭৫৬৮০, +৮৮০১৯৫৬-৬৯৫৯৮১, ই-মেইল : nilakashbarta@gmail.com, nuruzzamannews@gmail.com, ফেসবুক : https://www.facebook.com/nilakashbarta
শিরোনাম
“ঐতিহাসিক ৭ মার্চ, বঙ্গবন্ধুর ভাষণে গর্জে উঠেছিল উত্তাল জনসমুদ্র”” “ট্রেনের নিচে প্রেমিক যুগলের ঝাঁপ, জীবন গেল প্রেমিকের” “চলতি সপ্তাহের ভাইরাল সংবাদ “ফেঁসে যাচ্ছেন নাসিরের স্ত্রী তামিমা!” “বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ বাংলাদেশের স্বাধীনতার মূল প্রেরণা”- কবির নেওয়াজ দেশের বিভিন্ন এলাকায় বজ্র বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে “সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের নির্বাচন সম্পন্ন বাপ্পী সভাপতি, সুজন সম্পাদক” “৪ যুবকের সঙ্গে কিশোরীর ‘প্রেম’, পরে লটারিতে মীমাংসা!” “শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার আগে কাঁদতে কাঁদতে নববধূর মৃত্যু” গাড়িবোমা হামলা চালিয়ে ২০ জনকে হত্যা” “মিয়ানমারে চরম বিপাকে সেনাবাহিনী, রাস্তায় রাস্তায় ঝুলছে নারীদের লুঙ্গি!”

“রতন ও মিজান গেলো বাঘের পেটে, বেঁচে গেলো মুসা! পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের দাবি”

ডেস্ক রিপোর্টঃ টানা কয়েক দিন ধরে সুন্দরবনে দু’জন নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় ব্যপক আলোচনা হচ্ছে। এরই মধ্যে বাড়ি ফিরেছে জীবত মুসা। মুসার ভার্ষমতে, রতন ও মিজান বাঘের পেটে গেলেও বেঁচে গেলো মুসা!

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, তারা কাকড়া আহরণের জন্য নয়, ভারত থেকে অবৈধ পথে গরু আনতে গিয়েই বাঘের আক্রমণে নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার পশ্চিম কৈখালী গ্রামের কফিল উদ্দিনের ছেলে রতন (৪২) ও একই গ্রামের মনো মিস্ত্রির ছেলে মিজানুর রহমান (৪০)।

বাঘের মুখ থেকে জীবন নিয়ে রোববার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে বাড়ি ফিরে এসে ওই দলের আরেক সদস্য একই গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে আবু মুসা (৪১) স্থানীয় উৎসুক জনতা ও সাংবাদিকদের কাছে এই সব তথ্য জানিয়েছেন।

এলাকা বাসির ধারনা, উদ্ধার হওয়া মুসাকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে আসল রহস্য উদঘাটন করা যেতে পারে।

তার দেওয়া তথ্য মতে, রতন, মিজানুর রহমান ও আবু মুসা স্থানীয় চিহ্নিত গরু পাচারকারী মামুন ও আইজুলের গরু আনতে সুন্দরবনের মধ্য দিয়ে নদী পথে ভারতে যাচ্ছিলেন।”

আবু মুসা বলেছেন, “গরু আনতে যাওয়ার জন্য তার দুলাভাই মিজানুর রহমান তাকে উৎসাহিত করেছিলেন। এই প্রথম বার তার গরু আনতে যাওয়া”। এজন্য অগ্রিম পাঁচ হাজার টাকাও নিয়েছিলেন তিনি। “বুধবার (২০ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় নৌকায় উঠার পর সারারাত নৌকা চলে।” “বৃহস্পতিবার দিনের আলো ফুটলে তারা ভারতের কাছাকাছি সুন্দরবনের মধ্যে একটি খালে নৌকা ভীড়ে অবস্থান করছিলেন।” “বৃহস্পতিবার বিকেলে নৌকায় গরু আনতে সুবিধার জন্য কাঠ কাটতে বনে প্রবেশ করলে একটি বাঘ দুলাভাই মিজানুর রহমানকে প্রথমে আক্রমণ করে।” এসময় রতন চিৎকার করলে বাঘ রতনকেও আক্রমণ করে।” তখন খালে ঝাঁপিয়ে পড়ে নৌকার নিচে আশ্রয় নিয়ে কোন মতে জীবনে রক্ষা পান তিনি।”

 

আবু মুসা আরও জানান, “দীর্ঘ সময় একা নৌকা নিয়ে ভারতের দিকে যাওয়ার পথে এক ভারতীয় জেলে দম্পতির সাথে তার দেখা হয়।” এসময় তাকে সব কিছু খুলে বললে তারা মুসাকে আশ্রয় দেন।” ওই জেলে দম্পতির বাড়িতে এক দিন থাকার পর সীমান্ত এলাকার অন্য এক জনকে টাকা দিয়ে সুন্দরবনের মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করেন তিনি।’ পরে কৈখালীর লতিফ, আরিজুল, আরশ খানসহ চার- পাঁচজন নৌকায় করে তাকে এলাকায় নিয়ে আসেন।”

 

রতনের বড় বোন জানিয়েছেন, “সোমবারের দিন মামুন ও সোহরাব তাদের বাড়ি যায়।” “এসময় তিনি তাদের বড় কথা বললে তারা রতনের কাছে নালিশ করে।” রতন এজন্য বাড়ি এসে তাকে মারেও”। পরে বুধবারের দিন তারা রতনকে নিয়ে যায়”। এরপর তারা শুনতে পান রতনকে বাঘে নিয়ে গেছে।”

 

রতনের স্ত্রী বলেন, “মামুন আরিজুলসহ কয়েক জন বুধবার রতনকে নিয়ে যায়। তাকে নিয়ে মেরে ফেলেছে নাকি বাঘে ধরেছে জানি না। আমরা তার মরদেহ অথবা তাকে জীবিত চাই।”

 

আরও পড়ুন

“আমেরিকার নির্বাচনের সঙ্গে তুলনা, কথার কথা” সিইসি

নীলাকাশ বার্তাঃ “আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে কথা বলে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন ‘সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, স্বচ্ছ ও গ্রহণ যোগ্য’ হওয়ার বিষয়ে আশ্বস্ত হয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা।”

“সভা শেষে এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, “আমেরিকার নির্বাচন তাদের আইন দিয়ে হয়, আমাদের নির্বাচন আমাদের আইন দিয়ে হয়। আমেরিকার নির্বাচনের সঙ্গে তুলনা যেটা বলা হয়, সেটা কথার কথা।”

“রোববার দুপুরে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সিইসি নিজেই আশ্বস্ত হওয়ার কথা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।”

“এর আগে ১২ নভেম্বর ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে নিজের ভোট প্রদান শেষে সাংবাদিকদের কাছে সিইসি বলেন, “যুক্তরাষ্ট্র চার থেকে পাঁচ দিনে ভোট গুনতে পারে না। আমরা চার থেকে পাঁচ মিনিটে গুনে ফেলি। যুক্তরাষ্ট্রের আমাদের কাছে শেখার আছে। আবার যুক্তরাষ্ট্রের ভালো দিকগুলো থেকে আমাদেরও শেখার আছে।”

প্রেস ব্রিফিংয়ে সিইসি নুরুল হুদা বলেন, “আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, বিজিবি, আনসার, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব ও গোয়েন্দা সংস্থার ১৬ জনের বক্তব্য আমরা শুনেছি। নির্বাচনের পরিবেশ- পরিস্থিতি নিয়ে তারা সবাই সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন।” প্রত্যেকে আশাবাদী যে, ২৭ জানুয়ারির চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন সুষ্টু, নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ ও গ্রহণযোগ্য হবে।” আমরা আশ্বস্থ হয়েছি যে বিভিন্ন পর্যায়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিয়োগ মোতোয়েনটা সঠিকভাবে হয়েছে। আশা করি নির্বাচন ভালো হবে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *