রাত ৮:৩১ । ২১শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ । ৬ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ । ২২শে রজব, ১৪৪২ হিজরি


জরুরী নোটিশ/বিজ্ঞপ্তিঃ
* সর্বশেষ খবর সবার আগে পেতে ভিজিট করুন নীলাকাশ বার্তা ডট কম। ধন্যবাদ। জরুরী ভিত্তিতে বাংলাদেশের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোটাল নীলাকাশ বার্তা ডট কম পত্রিকায় জেলা/উপজেলা ভিত্তিক প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন। অফিস : সুন্দরবন টাওয়ার (২য় তলা), নূরনগর বাজার, নূরনগর-৯৪৫১, শ্যামনগর, সাতক্ষীরা, ঢাকা, বাংলাদেশ। মোবাঃ +৮৮০১৮৮৫-১৭৫৬৮০, +৮৮০১৯৫৬-৬৯৫৯৮১, ই-মেইল : nilakashbarta@gmail.com, nuruzzamannews@gmail.com, ফেসবুক : https://www.facebook.com/nilakashbarta
শিরোনাম

“রান আউটের রেকর্ডটি ঘামিয়ে তুলবে ভারতকে”

খেলার বার্তাঃ “রেকর্ডটির কথা এখনো অজিঙ্কা রাহানে, রোহিত শর্মারা জানতে পেরেছেন কি না, কে জানে! জানতে পারলে হয়তো আফসোস করছেন। আগে জানলে নিশ্চিত এমনটা হতে দিতেন না তাঁরা!

কী রেকর্ড? রান আউটের! সিডনি টেস্টে ভারতের প্রথম ইনিংসে তিন ব্যাটসম্যান রানআউট হয়েছেন। আর রেকর্ডের ভিত্তিতে যদি পূর্বানুমান করতে গেলে বলতে হয়, এই তিন রানআউটই এই টেস্টে ভারতের ভাগ্য লিখে দিয়েছে। আর সেই বিধিলিপিতে ‘জয়’ লেখা নেই। রেকর্ড যে বলে, এর আগে যে ৬ বার কোনো টেস্টে এক ইনিংসে ভারতের তিন বা তার বেশি ব্যাটসম্যান রানআউট হয়েছেন,সেই টেস্টে ভারতের আর জেতা হয়নি! চারটিতে ড্র করেছে, দুটিতে হেরেছে।”

২ উইকেটে ৯৬ রান নিয়ে দিন শুরু করা ভারত আজ প্রথম ইনিংসে ২৪৪ রানে অলআউট হয়ে গেছে। নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ২ উইকেটে ১০৩ রান নিয়ে দিন শেষ করা অস্ট্রেলিয়া এখনই এগিয়ে আছে ১৯৭ রানে। ক্রিজে অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান মারনাস লাবুশেনে (৪৭*) ও প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করা স্টিভ স্মিথ (২৯*)। টেস্টের তৃতীয় দিন শেষেই যে চালকের আসনে অস্ট্রেলিয়া, তা আর বলার দরকার পড়ে না।

“অথচ তিনটা রান আউট না হলে ভারত আরও ভালো অবস্থানে থাকতে পারত! গত এক যুগে টেস্টে এই প্রথমবার এক ইনিংসে তিন ব্যাটস ম্যানকে রান আউট হতে দেখল ভারত।” টেস্ট ক্রিকেটই এমনটা দেখেছে প্রায় ছয় বছর পর। সর্বশেষ এক ইনিংসে তিন ব্যাটসম্যান রানআউট হয়েছেন ইংল্যান্ডের, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেন্ট জর্জে ২০১৫ সালের এপ্রিলে।”

“ভারতের রানআউটগুলো হয়েছেও কী গুরুত্বপূর্ণ সময়ে! ইনিংসের ৬৮তম ওভারে হনুমা বিহারিকে দিয়ে শুরু। কিছুক্ষণ আগে অধিনায়ক অজিঙ্কা রাহানেকে হারানো ভারত তখন একদিকের ক্রিজে চেতেশ্বর পূজারার ব্যাটে বড় কিছুর আশায়, ঠুক ঠুক করে অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের হতাশও করছিলেন পূজারা। বিহারি অন্য প্রান্ত থেকে সঙ্গ দিয়ে যেতে পারলেই হয়তো জুটিটা বড় হতো”! কিন্তু মিড অফে বলে ঠেলে রান চুরি করতে গিয়ে জশ হ্যাজলউডের দারুণ থ্রোয়ের শিকার বিহারি (৪)। লম্বা গড়নের শরীর নিয়ে হ্যাজলউড যেভাবে ডাইভ দিয়ে সরাসরি থ্রোতে স্টাম্প ভেঙেছেন, তা দেখে অস্ট্রেলিয়া কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারের বুক জুড়িয়ে যাওয়ার কথা।”

“এরপর কামিন্স-লাবুশেনের যৌথ প্রযোজনায় রানআউট হন অশ্বিন (১০)। সেটিও কখন! পূজারা ফিরে গেছেন ওভার চারেক আগে, ভারতের তখন স্বীকৃত ‘ব্যাটসম্যান’ বলতে ক্রিজের এক পাশে রবীন্দ্র জাদেজা, আর অন্য প্রান্তে যা একটু আশা ছিল টেস্টে চারটি সেঞ্চুরি করা অশ্বিনকে ঘিরেই। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে যশপ্রীত বুমরা একই ভাবে ফিরেছেন লাবুশেনের সরাসরি থ্রো,তে। অন্য প্রান্তে তখনো অপরাজিত জাদেজা। শেষ পর্যন্তই অপরাজিত ছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন

“রিয়ালকে চার ঘণ্টা আটকে রাখল তুষারঝড়”

খেলার বার্তাঃ বছরের প্রথম তুষারপাত নিয়ে মাতামাতি কম হয় না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গেলেই এ নিয়ে আনন্দ চোখে পড়বে সবার। কিন্তু তুষার শব্দটার পাশে ‘পাত’ না হয়ে ‘ঝড়’ বসলেই আপত্তি। লা লিগার সব পরিকল্পনা গুবলেট করে দিতে চাইছে প্রকৃতি। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি ম্যাচ পেছাতে হয়েছে। অনেক দলকে তো ম্যাচের আগে যাত্রা বাতিল করে দিতে হয়েছে।

তুষারঝড়ের প্রকোপটা সবচেয়ে বেশি টের পেয়েছে রিয়াল। ওসাসুনার বিপক্ষে ম্যাচ আজ তাদের। এ কারণে গতকাল উড়াল দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়ে বের হয়েছিল দলটি। ঘটা করে দলের উড়োজাহাজে ওঠার ভিডিও দিয়েছিল ক্লাব। এরপরই আর কোনো আওয়াজ নেই। মাত্র ৪৫ মিনিটের যাত্রা পাম্পলোনা। কিন্তু রিয়ালকে মাদ্রিদের বারাহাস বিমানবন্দরে বসে থাকতে হলো চার ঘণ্টা!

ওসাসুনার মাঠে খেলতে যেতে এমনকি সড়কপথেও চার ঘণ্টার একটু বেশি লাগে। সেখানে উড়োজাহাজে উঠে চার ঘণ্টা বসে থাকতে হয়েছে রিয়ালকে। প্রচণ্ড ঝড়ে আকাশপথ অনিরাপদ বলেই বিবেচিত হচ্ছিল।

ঝড় থামার পরও সঙ্গে সঙ্গে রওনা হওয়া যায়নি। প্লেনের ইঞ্জিন ও প্রপেলার যাত্রার জন্য উপযুক্ত, এটা নিশ্চিত করতে হচ্ছিল কর্তৃপক্ষকে। গতকাল রাতে রিয়ালের যাত্রা নিয়ে এমন খবর ছড়িয়ে পড়ার পর অনেকেই ‘বাসবি বেবস’দের স্মরণ করছিলেন। ১৯৫৮ সালে এমনই এক তুষারঝড়ের পর উড়াল দিতে গিয়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এক প্রজন্ম হারিয়ে গিয়েছিল।

রিয়াল মাদ্রিদের ভাগ্য ভালো, এমন কিছু দেখতে হয়নি তাদের। পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ার পর তারা উড়াল দিতে পেরেছে। নির্ধারিত সময়ের চার ঘণ্টা পর পাম্পলোনাতে পৌঁছেছে তারা। ওসাসুনার বিপক্ষে আজ বাংলাদেশ সময় রাত দুইটায় খেলতে নামার কথা।

এমন পরিস্থিতিতেও লিগ খেলা চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়ায় বিরক্ত রিয়ালের কর্মকর্তারা। বিমানবন্দরে আটকে থাকার সময় এক সদস্য বলেছিলেন, ‘এখানে আমরা ইঁদুরের মতো আটকা পড়েছি।’ আরেকজন কর্মকর্তা ওসাসুনা পৌঁছানোর পরও বিরক্তি প্রকাশ করেছেন স্প্যানিশ দৈনিক এএসের কাছে, ‘এটা চরম পাগলামি। এটা ব্যাখ্যার অতীত। গোলমেলে ব্যাপার।’ আবহাওয়াবিদরা তুষারঝড়ের মধ্যে ম্যাচ আয়োজনের ব্যাপারে আপত্তি জানালেও লিগ কর্তৃপক্ষ সেটা গায়ে মাখেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


4